নড়াইলের কালিয়া উপজেলায় আওয়ামী লীগ ও বিএনপির নেতাকর্মীদের মধ্যে সংঘর্ষে ৮ জন আহত হয়েছেন।সোমবার সকাল ৯টার দিকে উপজেলার রঘুনাথপুর গ্রামে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

রঘুনাথপুর গ্রামের আওয়ামী লীগ সমর্থিত গ্রুপের দলপতি বাবু মোল্যা নড়াইল সদর উপজেলার সীমান্তবর্তী সিঙ্গাশোলপুর বাজারে গেলে প্রতিপক্ষ বিএনপির সমর্থিত ইনা মেম্বার গ্রুপের লোকজন তাকে কুপিয়ে ও পিটিয়ে গুরুতর আহত করে। এর জেরে সোমবার সকাল ১০টার দিকে দুই গ্রুপের সমর্থিত লোকজন রঘুনাথপুর বাজারে আবারও সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে।

এতে দুই গ্রুপের অন্তত ৮ জন আহত হয়। তাদেরকে নড়াইল ও খুলনা মেডিকেল কলেজে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।স্থানীয় সূত্র জানায়,কালিয়া উপজেলার পুরুলিয়া ইউপির রঘুনাথপুর গ্রাম ও বাজারের দলীয় আধিপত্য বিস্তার নিয়ে তাদের দুই গ্রুপের মধ্যে বহুপূর্ব থেকে এ শত্রুতা চলে আসছে। বাবু মোল্যা ওই গ্রামের আওয়ামী লীগ সমর্থিত গ্রুপের নেতৃত্ব দিচ্ছেন। অপরদিকে ওই ইউপির ৮নং ওয়ার্ড বিএনপির সভাপতি ইনা মেম্বার বিএনপির গ্রুপের নেতৃত্ব দিচ্ছেন।

উল্লেখ্য, এ আধিপত্য বিস্তার নিয়ে রঘুনাথপুর ও পার্শ্ববর্তী চাঁদপুর গ্রামে এ পর্যন্ত মোট ৫ জন খুন হয়েছে। তারা হলেন মেম্বার মোকাদ্দেস মোল্যা, ওই মামলার প্রধান সাক্ষী জান্নাত মোল্যা, মোসলেম মোল্যা,রানা ও কবির।কালিয়া থানার ওসি মো. রফিকুল ইসলাম যুগান্তরকে বলেন, ‘আমার থানাধীন ঘটনাস্থল পুলিশ পরিদর্শন করেছে। কোনোপক্ষই অভিযোগ করেননি। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

নড়াইল সদর থানার ওসি মো.ইলিয়াছ হোসেন যুগান্তরকে বলেন, ‘সদর উপজেলার শিঙ্গাশোলপুরের সকালের ঘটনা শুনেছি। অভিযোগ পেলে যথাযথ ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here