ইরানের শেষ সম্রাট ছিলেন মোহাম্মদ রেজা শাহ পাহলভী। ১৯৪১ থেকে ১৯৭৯ সাল পর্যন্ত ইরান শাসন করেন তিনি। ১৯৭৯ সালের ১১ ফেব্রুয়ারি ইরানে ইসলামি বিপ্লবের মাধ্যমে পাহলভী রাজবংশকে উৎখাত করা হয়।যুগান্তকারী এই বিপ্লব ইরানকে পাশ্চাত্যপন্থী দেশ থেকে ইসলামি প্রজাতন্ত্রে পরিণত করে। এ বিপ্লবকে বলা হয় ফরাসি এবং বলশেভিক বিপ্লবের পর ইতিহাসের তৃতীয় মহান বিপ্লব।

ইরানের সর্বোচ্চ ধর্মীয় নেতা আয়াতুল্লাহ আলী খামেনি ইসলামি বিপ্লবের সূচনা করেছিলেন। বিপ্লবের আগে ফ্রান্সে নির্বাসিত ছিলেন তিনি। প্যারিসের বাইরে নফলে-ল্য শাতো নামের গ্রামে বসে ইরানে তার রাজনীতি নিয়ন্ত্রণ করতেন খামেনি।

তবে ইসলামি বিপ্লবের আগে ইরানিদের জীবনযাত্রা বর্তমান সময়ের মত ছিল না। বিপ্লবের আগে দেশটিতে সুন্দরী প্রতিযোগিতার আয়োজনও করা হতো।

ইসলামি বিপ্লবের আগে কেমন ছিল ইরানিদের জীবনযাত্রা তা ছবির মাধ্যমে তুলে ধরা হলো।

এই ছবিটি ১৯৭১ সালের। তেহরান বিশ্ববিদ্যালয়ে নারী শিক্ষার্থীদের দেখা যাচ্ছে। ১৯৩৪ সাল থেকে এই বিশ্ববিদ্যালয়ে নারীরা শিক্ষা গ্রহণ করছেন।

তবে ইসলামি বিপ্লবের পর বিশ্ববিদ্যালয়ে নারী শিক্ষার্থীদের শ্রেণিকক্ষে বসার স্থান ও পোশাকে পরিবর্তন আসে।

১৯৭১ সালে তোলা এই ছবিতে তেহরান বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রবেশপথ দুজন নারী ও একজন পুরুষ শিক্ষার্থীকে দেখা যাচ্ছে।

এই ছবিতে ১৯৭০-এর দশকের ইরানি বিশ্ববিদ্যালয়পড়ুয়া শিক্ষার্থীদের দেখা যাচ্ছে।

এই ছবিটি ১৯৭১ সালের। ছবিটিতে তেহরানের একটি হাসপাতালের অস্ত্রোপচার কক্ষে চিকিৎসকদের দেখা যাচ্ছে।

এই ছবিতে ‘মিস ইরান ১৯৬৭’ শাহলা ভাহাবজাদেহ দেখা যাচ্ছে। সে সময় তেহরানের হিলটন হোটেলে সুন্দরী প্রতিযোগিতা আয়োজিত হতো। দেশের সবচেয়ে সুন্দরী নারীর খেতাব জিততে এ প্রতিযোগিতায় অংশ নিতেন ইরানি তরুণীরা।

এই ছবিটি ১৯৬০-এর দশকের ইরানি রক ও জ্যাজ ব্যান্ড ‌‘ব্ল্যাক ক্যাটস’।

এই ছবিটি ১৯৬০-এর দশকের। ইরানে একটি অনুষ্ঠানে গানের তালে তালে নাচছেন অতিথিরা।

এই ছবিটি ১৯৭১ সালের। রাজধানী তেহরানের তৎকালীন বিখ্যাত বিপণিবিতান, কুরোশ ডিপার্টমেন্ট স্টোরে কেনাকাটা করছেন এক নারী।

এই ছবিটি ১৯৭৫ সালের তোলা। পারস্য সম্রাটের সম্মানে আয়োজিত অনুষ্ঠানে কসরত প্রদর্শন করছেন জিমন্যাস্টরা।

সর্বশেষ ছবিটি ইরানের রাজধানী তেহরানের। এটি ১৯৭১ সালে তোলা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here