এখনো চাইলে স্কুলে শিক্ষকতা করতে পারেন তিনি। তবে শিক্ষকতার চেয়ে প’তিতা ক’র্মী হয়ে থাকাটা তার কাছে বেশি স্বাচ্ছন্দের। অবিবাহিত ওই নারী বর্তমানে চার সন্তানের মা। তার কাছে, প’তিতা পেশাটাই সবচেয়ে পারফেক্ট।কেন এই পেশা পছন্দ, সেটাও ব্যাখ্যা করেছেন তিনি। ইংল্যান্ডের ন’টিংহামে বসবাস করেন ৩৪ বছর বয়সী ভিক্টোরিয়া। একটা সময় তিনি স্কুলে শিক্ষকতা করতেন।

তিনি বলেন, এমন কাজ আমার পছন্দের, যে কাজটা করা যায় ছেলেমেয়ের পড়াশোনার সময়। তারা যখন বিদ্যালয়ে থাকে, ওই সময় সময় দিতে পারলে ভালো হয়।দিনে চারজন খদ্দেরকে সময় দেন ভিক্টোরিয়া। তিনি জানিয়েছেন, সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম এবং অ্যাপ থেকে খ’দ্দের পান। এছাড়া অ্যা’ডাল্ট ভিডিও ধারণ করে ঘণ্টায় ২৭ হাজার ছয়শ ৯৭ টাকা আয় করেন।

তবে তিনি দাবি করেছেন, প’তিতা কর্মী হলেও নিজেকে আদর্শ মা মনে করেন। ছেলেমেয়েদের কাছেও তিনি অনেক প্রিয় বলে জানিয়েছেন।তিনি আরও বলেন, খ’দ্দেরদের এটা মাথায় রাখা দরকার যে, আমি এখনো বাচ্চাদের স্কুলে নিয়ে যেতে চাই এবং তারপর আমি খদ্দের সামলানোর চেষ্টা করব। বেশিরভাগ খ’দ্দেরকেই আমার বাচ্চাদের স্কুলে পড়ার সময় ম্যানেজ করি।

ভিক্টোরিয়ার তিন ছেলে ও এক মেয়ে আছে। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির জন্য দুটি প্রামাণ্যচিত্রে কাজ করেছেন তিনি। ওই সময় তিনি জানিয়েছেন, নিজের পেশাকে অনেক সম্মান করেন এবং নিজেকে ভালো মা বলে মনে করেন।তবে তিনি এও জানিয়েছেন, মেয়ে যেন তার পদাঙ্ক অনুসরণ না করে, সবসময় সেটা চান।

৪১ বছরের ডিভো’র্সি নারী পাত্র চান ২৩ বছরের !বয়স ৪১। ব্যক্তিগত জীবনে ডিভো’র্সি। ফের বিয়ে করতে চান। কিন্তু পাত্র ২৩ বছর বয়সী। একই সাথে বান্ধবী থাকা যাবে না, ইন্টারনেট ব্যবহার করা যাবে না সহ রয়েছে নানা শর্ত।পাত্র চেয়ে এমনই একটি বিজ্ঞাপন সোশ্যাল মিডিয়ায় ঘুরে বেড়াচ্ছে। জানা গেছে, ৪১ বছরের ওই নারী বাংলাদেশি হলেও থাকেন মালয়েশিয়ায়। সেখানে পাত্রীর নিজস্ব ব্যবসা ও বাড়িগাড়ি রয়েছে। বিজ্ঞাপনে বলা হয়েছে, পাত্রকে বিয়ের পর পাত্রীর ব্যবসা দেখাশোনায় সাহায্য করতে হবে।

পাত্র চেয়ে যেসব শর্ত দেয়া হয়েছে-
অবশ্যই হ্যান্ডসাম এবং সুন্দর দেখতে হতে হবে। ফর্সা এবং ভাল সাস্থ্যের হতে হবে।
কালো ও চাপাভাঙ্গা পাত্রদের আবেদন করার দরকার নেই।

বয়সঃ ২৩ থেকে ২৮ এর মধ্যে হতে হবে। বিয়ের পর কলেজে/ভার্সিটিতে পড়াশোনার নামে মেয়েদের সাথে নষ্টামি করা যাবেনা। বউয়ের কথার অবাধ্য হওয়া যাবেনা। কোনও মেয়ে বন্ধু থাকা চলবে না। অনুমতি ছাড়া বাড়ির বাইরে যাওয়া যাবেনা। ফেইসবুক/ইন্টারনেট ব্যবহার করা যাবেনা।সর্বশেষ ওই বিজ্ঞাপনে লেখা হয়েছে, পাত্রকে টাকাপয়সার কোনও অভাব দেয়া হবেনা। বিজ্ঞাপনটি ভার্চুয়ালি ভাইরাল হয়ে পড়েছে। অনেকেই ইতিবাচক নেতিবাচক মন্তব্য করছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here