রাজধানীর ডেম’রা পশ্চিম বক্সনগরে একটি বাসায় চাকরির প্রলোভন দেখিয়ে এক তরুণীকে (২৩) একাধিকবার ধ’র্ষণের অ’ভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় তরুণীর মা’মলায় অ’ভিযুক্ত আল আমিনকে (৩৯) গ্রে’ফতার করে পু’লিশ।মঙ্গলবার (১৯ নভেম্বর) রাতে তাকে গ্রে’ফতার করা হয়। পাশাপাশি স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য ধ’র্ষণের শি’কার তরুণীকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে (ওসিসি) ভর্তি করা হয়েছে।

ডেমরা থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) রেজাউল করিম জানান, তরুণীর বাড়ি চট্টগ্রামে। সেখানেই একটি গার্মেন্টে চাকরি করে সে। গত ১৪ নভেম্বর ওই তরুণীর পূর্ব পরিচিত আল আমিন তাকে চাকরির প্রলোভন দেখিয়ে ঢাকায় নিয়ে আসে।এরপর ডেমরা পশ্চিম বক্সনগরে তার ভাড়া বাড়িতে ওঠায়। এক পর্যায়ে ওই তরুণীকে বিভিন্ন প্রলোভন দেখিয়ে একাধিকবার ধ’র্ষণ করে। গতকাল তরুণী নিজে থানায় গিয়ে আল আমিনের বি’রুদ্ধে মা’মলা করে।

আরো পড়ুন অ’ঘোষিত পরিবহন ধ’র্মঘটে জি’ম্মি সারা দেশ সড়ক পরিবহন মালিক-শ্রমিকদের অঘোষিত ধর্মঘটে জি’ম্মি হয়ে পড়েছে সারা দেশ। চালক-শ্রমিকরা বাসসহ গণপরিবহন বন্ধ রাখায় চরম দুর্ভোগে পড়েছেন দেশের লাখ লাখ মানুষ। নতুন সড়ক পরিবহন আইন সংশোধনের দাবিতে মালিক ও শ্রমিক নেতাদের উসকানিতে এই আকস্মিক ধর্মঘটে নেমেছেন শ্রমিকরা। মালিক ও শ্রমিক নেতারা ধর্মঘটের দায় না নিলেও এই নৈরাজ্যের নেপথ্যে তাদের প্রত্যক্ষ ইন্ধন রয়েছে বলে মনে করছেন পরিবহন বিশেষজ্ঞরা।

এদিকে বাংলাদেশ ট্রাক-কাভার্ড ভ্যান পণ্য পরিবহন মালিক-শ্রমিক ঐক্য পরিষদ গতকাল সংবাদ সম্মেলন করে বলেছে, আজ থেকে পণ্য পরিবহন চালকরাও গাড়ি চালাবেন না।খুলনায় দ্বিতীয় দিনের মতো চলছে চালকদের কর্মবিরতি। গতকাল সকাল থেকে খুলনার অভ্যন্তরীণ ও দূরপাল্লার কোনো যানবাহন চলেনি। ধর্মঘটে যাত্রীদের সীমাহীন দুর্ভোগ হচ্ছে। ধর্মঘট নিয়ে জে’লা প্রশাসনের উদ্যোগে খুলনা সার্কিট হাউসে পরিবহন মালিক ও শ্রমিকদের বৈঠক হয়।

এতে খুলনা জে’লা প্রশাসক মোহাম্মদ হেলাল হোসেন, পু’লিশ সুপার এস এম শফিউল্লাহ, অতিরিক্ত জে’লা ম্যা’জিস্ট্রেট ইউসুপ আলী উপস্থিত ছিলেন।খুলনা মোটর শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক জাকির হোসেন বলেন, বৈঠকে প্রশাসনের পক্ষ থেকে আগামী কয়েকদিন নতুন সড়ক আইন প্রয়োগ শিথিল করার আশ্বাস দেওয়া হয়েছে। এ কারণে ইউনিয়নের পক্ষ থেকে চালক-মালিকদের গাড়ি চালানোর অনুরোধ করা হয়েছে। আজ (বুধবার) থেকে খুলনার

অভ্যন্তরীণ রুটে চালকরা গাড়ি চালাবেন।রংপুর নগরীতে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেছে ট্রাক শ্রমিকরা। দুপুরে নগরীর কলেজ রোডের ট্রাক শ্রমিক ইউনিয়নের কার্যালয় থেকে এই মিছিল বের হয়। এর আগে নতুন সড়ক আইন সংশোধনের দাবিতে সমাবেশ হয়। রংপুর জে’লা ট্রাক, ট্যাংকলরি, কাভার্ডভ্যান ও ট্রাক্টর শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি হাফিজুর রহমান হাফিজের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক শহিদুল ইসলাম মানিক, কার্যকরী সভাপতি জয়নাল আবেদীন, সহসভাপতি আশরাফ আলী প্রমুখ।

এদিকে রংপুরে দ্বিতীয় দিনের মতো চলছে ধর্মঘট। জে’লা থেকে দেশের ১২টি রুটে বন্ধ রয়েছে বাস চলাচল। বুড়িমারী, বাংলাবান্ধা ও সোনাহাট স্থলবন্দর থেকে ছেড়ে আসা গাড়িগুলো পথে আ’টকে দেন পরিবহন শ্রমিকরা। আ’টকে পড়া পরিবহন চালকদের দাবি, শ্রমিক নেতারা জোর করে তাদের আ’টকে রেখেছেন।

পূর্ব ঘোষণা ছাড়াই সকাল থেকে বরিশালের অভ্যন্তরীণ এবং দূরপাল্লা রুটে বাস চলাচল বন্ধ করে দিয়েছে শ্রমিকরা। আকস্মিক বাস বন্ধে চরম দুর্ভোগে পড়েছেন যাত্রীরা। পরিবহন মালিক-শ্রমিক নেতারা বলছেন, বিভিন্ন স্থানে বাস চলাচল করতে বা’ধার সম্মুখীন হচ্ছেন তারা। ভাঙচুর করা হচ্ছে বাস। এ ছাড়া নতুন সড়ক আইনে জে’ল-জরিমানা বেশি থাকায় শ্রমিকরা বাস চলাচল বন্ধ রেখেছেন।

গাজীপুরের শ্রীপুরে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়ক অবরোধ করেছে পরিবহন শ্রমিকরা। সকালে দুই ঘণ্টা শ্রীপুর উপজে’লার মাওনা চৌরাস্তা মোহা. সিএনজি পাম্পের সামনে শ্রমিকরা সড়ক অবরোধ করে। এ সময় মহাসড়কের উভয় পাশে যানজট সৃষ্টি হয়।
নওগাঁয় তৃতীয় দিনের ধর্মঘটে বালুডাঙ্গা বাসস্ট্যান্ড থেকে জে’লার ১১ উপজে’লার সব রুটের বাস চলাচল বন্ধ রয়েছে। বন্ধ রয়েছে রাজশাহী ও বগুড়া রুটের সব বাস। ফলে দূরপাল্লার যাত্রীরা দুর্ভোগে পড়েছেন।

বাস ছাড়া অন্যান্য যানবাহন কম থাকায় দ্বিগুণ ভাড়া গুনতে হচ্ছে।চাঁপাইনবাবগঞ্জে বাস চলাচল বন্ধ রেখেছেন শ্রমিকরা। সকাল থেকে আন্তজে’লা ও উপজে’লা রুটে কোনো বাস ছেড়ে যায়নি। তবে ট্রাক চলাচল করছে স্বাভাবিকভাবেই। বাস শ্রমিকরা জানান, নতুন আইনে শা’স্তি বাড়িয়ে দেওয়ায় তারা বাস চালানো বন্ধ রেখেছেন।
নেত্রকোনায় সকাল থেকেই পরিবহন চালকরা কর্মবিরতি শুরু করে। পৌর শহরের আন্তজে’লা বাস টার্মিনাল থেকে অভ্যন্তরীণ বাস চালু থাকলেও দূরপাল্লার বাস ছেড়ে যায়নি। বিপাকে পড়েছেন দূরপাল্লার যাত্রীরা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here